কাগজ বালক

অহনা সরকার

কাগজের সাদা বালকগুলো
নেভাতুর কল্পনা
লক্ষ্য ধাতু নিষ্কৃত
সাদা পাথর মোকড়ে
আহত শহর

নিতান্ত নিঃক্ষেপ

স্তম্ভিত গ্রামজীবন থেকে মহানগর ফিরছে। হাতে একটা কাদা মাটির ব্যাগ। কখনও অনন্ত ছিল আর স্রোতের কালে কিছু চেনা বর্ষা পরিসংখ্যান মেষ আর একটা গরুর গাড়ি। রাস্তা নেই যে পথ একপ্রকার হাহাকার। মাঝে মাঝে শব্দে দূরাত্ব ভেসে আসা কল্পনা স্বপ্নে দেখি একটা ট্রাম চলেছে দু’পাশে বেলুনওয়ালা হাতে বড় বড় ঘাস পাতায় নানা রঙের বিলিতি চকলেট একটা মাছের ঘরও আছে যদিও সেটা বাণভাসী।

অকথ্য লাগে জানি। পাশ দিয়ে পেরিয়ে যাওয়া বড় বড় সাঁকো সুরাট মাঝে মাঝে নিজের চোখ তুলে যখন পদ্মার ওপারে ভাসো ভাসো চুম্বী একটা গ্রাম সদ্য হাঁটতে শিখেছে তখনও নাম হয়নি, সকাল এসে একদিন জানতে চেয়েছিল, “আমার সাথে যাবি’? পরিহার না পরোকার কোনটা বিধেয়? কোনটায় চোখ রাখলে আর কখনও দেখা যায় না ভুঁইপোতার জঙ্গল কয়েকটা কচি হাত নিজের মনে বেছে বেছে জড়ো করা অধ্যায়

এগুলো কি বিলাস স্মৃতি বা সামনের? হবে হয়ত। এই যে আবহমান জমা ভিড় কাঁথা কাপড় কফ না পোড়ানো দেহ কাকে র ছেঁড়া ঠোঁট কখনও চেয়ে থাকতে থাকতে মনে হয় ঝাঁপ দিলেই তো হয়! একদম নিচে অলন্ত তলিয়ে যাওয়া

একটা পাখি প্রবাসী স্বপূরক ভুল হতে হতে ও ই দূরে দেখো বিস্ময় একলা চোখে ক্লান্ত

বিভাগ:ভাববাচ্য

উচ্চারণ ওয়েব ম্যাগাজিন

কথাদের স্পর্ধা

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s